প্রজাপতির ছবি তোলা

প্রজাপতির ছবি তোলা


প্রজাপতির ছবি তোলা তেমন কঠিন নয়। একটু চর্চা করলেই ভালো ছবি তোলা সম্ভব। আমি আগে কোনদিনই প্রজাপতির ছবি তুলিনি। সে অর্থে আমার প্রজাপতির ছবি তোলার অভিজ্ঞতা শুন্য। আর শুন্য অভিজ্ঞতা নিয়েই আমি আর সুব্রত বেরিয়েছিলাম প্রজাপতির ছবি তুলতে। উত্তর আমেরিকায় এখন শীতকাল। প্রজাপতির ছবি তোলার জন্য তাই বাটারফ্লাই প্যাভিলিয়নেকেই বেছে নিয়েছিলাম। এরকম প্যাভিলয়ন বা কনজারভেটরিতে নাতিশীতোষ্ণ পরিবেশে প্রজাপতি পালন করা হয়। আগেই যেমনটা বলেছি প্রজাপতির ছবি তোলার কোন পূর্বঅভিজ্ঞতা আমার নেই। এই লেখায় আমি যেটুকু অভিজ্ঞতা অর্জন করছি তা শেয়ার করবো। তাছাড়া নিজের জন্যও একটা লগবুক হিসেবে কাজ করবে যাতে ভবিষ্যতে কাজে লাগে।

প্রজাপতির ছবি তুলতে যাওয়ার আগে ইন্টারনেট ঘেঁটে দেখলাম প্রজাপতির ছবি তোলার টিপস নিয়ে অনেক সাইট আছে। মোটামুটি সব টিপসই ক্যামেরা সেটিংস নিয়ে। যা বুঝলাম এপারচার ৫.৬ রাখতে হবে যাবে জমিনের গভীরতা এমন থাকে যেন প্রজাপতির পাখা ফোকাসে থাকে। আরেকটি টিপ হল প্রজাপতির পাখা মেললে ছবিটি এমনভাবে তুলতে হবে যেন প্রজাপতির পাখার সাথে ক্যামেরার সেন্সর সমান্তরাল হয়। তাহলে আউট অব ফোকাস এরিয়া কম হবে। অর্থাৎ ছবিটি পরিষ্কার হবে।

একটা ব্যাপার মনে রাখতে হবে যেকোন টিপস-ই ক্যামেরা, লেন্স, ফোকাল লেন্থ, ক্যামেরা থেকে বস্তুর দূরত্ব এসবের উপর নির্ভরশীল। যার অর্থ হলো এফ/৫.৬ সব লেন্সের ক্ষেত্রে বা সব পরিস্থিতিতেই গ্রহণযোগ্য হবে এমন নয়। বস্তু যদি লেন্সের খুব কাছে থাকে এবং সেটি ২০০মিমি লেন্স হলে এফ/৫.৬ যথেষ্ট গভীর ছবি দিবে না। আবার ২০০মিমি লেন্স দিয়ে বস্তু যদি দূরে থাকে তাহলে ৫.৬ যথেষ্ট হতে পারে।

আমার গিয়ার এবং সেটিংস ছিল এরকম:

  • ক্যানন ৪০ডি। সাথে ১০০মিমি ম্যাক্রো লেন্স। ম্যানুয়াল মোডে এপারচার এবং সাটারস্পিড সেট করা। আইএসও অটো, সর্বোচ্চ ৮০০
  • ক্যানন ৬ডি। সাথে ৭০-২০০মিমি এফ/২.৮ টু আইএস ইউএসএম লেন্স। ম্যানুয়াল মোডে এপারচার এবং সাটারস্পিড সেট করা। আইএসও অটো, সর্বোচ্চ ৬৪০০

ক্যানন ১০০মিমি ম্যাক্রো লেন্স দিয়ে ম্যাক্রো মোডে প্রজাপতির ছবি তোলা সম্ভব নয়। কারণ ১:১ ম্যাক্রো তুলতে গেলে বস্তুর যত কাছে যেতে হবে তাতে পুরো প্রজাপতি ফ্রেমে আসবে না।

নীচের এই ছবিটি খুব কাছ থেকে তোলা। সম্ভবত আধা মিটার দুরত্বে। কিন্তু প্রজপতির ডান পাখাটি ফোকাসে আসেনি। এর কারণ হলো প্রজাপতিটি একটু বামে হেলে বসেছিল। সেটা ছবি তোলার সময় খেয়াল করা হয়নি। প্রজাপতির সমান্তরালে হেলে ছবিটি তোলা হলে হয়তো দুটো ডানাই ফোকাসে আসতো।

ক্যানন ৪০ডি + ১০০মিমি ম্যাক্রো এফ/৫.৬ ১/২৫০ আইএসও ৪০০

ক্যানন ৪০ডি + ১০০মিমি ম্যাক্রো এফ/৫.৬ ১/২৫০ আইএসও ৪০০

নীচের এই ছবিটি তোলা হয়েছে আরো ছোট এপারচারে (এফ/৪.৫) অথচ প্রজাপতির পুরোটাই ফোকাসে এসেছে। এর কারণ হলো প্রজাপতিটি প্রায় দুই মিটার দূরে ছিল। ক্রপ করে এরকম কাছে আনা হয়েছে।

ক্যানন ৪০ডি + ১০০মিমি ম্যাক্রো এফ/৪.৫ ১/২৫০ আইএসও ৪০০

ক্যানন ৪০ডি + ১০০মিমি ম্যাক্রো এফ/৪.৫ ১/২৫০ আইএসও ৪০০

নীচের এটিও ১০০মিমি ম্যাক্রো দিয়ে তোলা। বেশ কাছে থেকে তোলা এবং অতি সামান্য ক্রপ করা হয়েছে। এই ছবিটি যদি এফ ৭ বা ৮ এ তোলা হতো তাহলে ডানার এজ-গুলো ফোকাসে থাকতো। ছবিটি দেখে মনে হচ্ছে ফোকাস পয়েন্টটি মাথার/চোখের কাছে ছিলনা। ক্যামেরার পজিশনও হয়তো খানিকটা বাঁকা ছিল; পুরোপুরি প্রজাপতির সমান্তরালে ছিলনা। তবে এই ছবিটি সমান্তরালে না থাকায় বরং ভালোই হয়েছে। তবে ফোকাস পয়েন্ট মাথার কাছাকাছি থাকলে ছবিটি আরো আকর্ষণীয় হতো।

ক্যানন ৪০ডি + ১০০মিমি ম্যাক্রো এফ/৪.৫ ১/১২৫ আইএসও ৪০০

ক্যানন ৪০ডি + ১০০মিমি ম্যাক্রো এফ/৪.৫ ১/১২৫ আইএসও ৪০০

 

ক্যানন ৪০ডি + ১০০মিমি ম্যাক্রো এফ/৫.৬ ১/৪০০ আইএসও ৪০০

ক্যানন ৪০ডি + ১০০মিমি ম্যাক্রো এফ/৫.৬ ১/৪০০ আইএসও ৪০০

নীচের এই ছবিতেও প্রজাপতির ডানার সব অংশ ফোকাসে আসেনি। যদিও এরকম ভালোই লাগছে তবুও পুরোটা ফোকাসে আনতে হলে হয় আরেকটু দূরে থেকে তুলতে হতো, অথবা এপারচার বাড়িয়ে ৮ বা ১১ করে দেখা যেতো। সেক্ষেত্রে আইএসও বাড়াতে হতো কিংবা শাটার স্পীড কমিয়ে এক্সপোজার সমন্বয় করা যেতো। তবে প্রজাপতির ছবি তোলার জন্য এত কম সময় পাওয়া যায় যাে সেটিংস পরিবর্তন করার কথা অনেক সময়ই মনে থাকে না। অভিজ্ঞতা বাড়লে এই সমস্যা গুলোর সমাধান করা যাবে।

ক্যানন ৪০ডি + ১০০মিমি ম্যাক্রো এফ/৫.৬ ১/১০০ আইএসও ৪০০

ক্যানন ৪০ডি + ১০০মিমি ম্যাক্রো এফ/৫.৬ ১/১০০ আইএসও ৪০০

ক্যানন ৪০ডি + ১০০মিমি ম্যাক্রো এফ/৫.৬ ১/১০০ আইএসও ৬৪০

ক্যানন ৪০ডি + ১০০মিমি ম্যাক্রো এফ/৫.৬ ১/১০০ আইএসও ৬৪০

ক্যানন ৪০ডি + ১০০মিমি ম্যাক্রো এফ/৭.১ ১/৫০ আইএসও ৮০০

ক্যানন ৪০ডি + ১০০মিমি ম্যাক্রো এফ/৭.১ ১/৫০ আইএসও ৮০০

ফুলের উপর প্রজাপতি বসে আছে এরকম ছবি সব সময়ই দেখা যায়। তার পরেও এরকম ছবি সবসময়ই ভালো লাগে। ফুল সহ প্রজাপতির কিছু ছবি আছে যেগুলো তোলা বেশ চ্যালেঞ্জিং।  নীচের  ছবি দুটি লক্ষ্য করুন। প্রজাপতি ক্যামেরার সমান্তরালে তো নয়ই বরং এমন একটি কোণে বসেছে যা নিয়ন্ত্রণ করা অসাধ্য। প্রজাপতির পেছন থেকে আলো  আসছে  (ব্যাকলিট) বলে এরকম ছবি দেখতে খুব আকর্ষণীয়।

ক্যানন ৬ডি + ৭০-২০০ এফ২.৮ IS USM এফ/৫.৬ ১/৫০০ আইএসও ১০০০

ক্যানন ৬ডি + ৭০-২০০ এফ২.৮  এফ/৫.৬ ১/৫০০ আইএসও ১০০০

দ্বিতীয় ছবিটিও অনেকটা উপরের ছবির মতোই তোলা টেকনিক্যালি সহজ নয়। আলো, বস্তুর অবস্থান, বস্তুর স্থিরতা, ইত্যানি নানা ফ্যাক্টর হিসাব করে এরকম ছবি তোলা সহজ নয়। এই ছবিটির প্রজাপতিটির প্রজাতি আগেরটির থেকে আলাদা। সুব্রতকে ধন্যবাদ ছবিটি নিসর্গে প্রকাশের অনুমতি দেয়ার জন্য।

ক্যানন এফ/৫ ১/৮০ আইএসও ১০০

ক্যানন টি৩-আই + ১৮-৫৫ মিমি এফ ৩.৫-৫.৬ লেন্স এফ/৫ ১/৮০ আইএসও ১০০ (ছবির স্বত্ব: সুব্রত)

নীচের ছবিটিও অনেকটা উপরের দুটি ছবির মতোই। ছবিটির এপারচার ১১ বা তারচেয়ে বেশী দিয়ে তুলতে পারলে হয়তোবা ডানাসহ পুরো প্রজাপতি ফোকাসে আসতো। টেকনিক্যাল ত্রুটি বাদ দিলে এই ছবিটি (নীচে) চমৎকার তথ্য প্রকাশ করছে। লক্ষ্য করেছেন কি প্রজাপতিটির পা গুলোতো হলুল হলুদ রেনু লেগে আছে? এভাবেই এক ফুল থেকে রেনু নিয়ে অন্য ফুলে ছড়িয়ে দিয়ে পরাগায়ন ঘটাতে সহায়তা করছে।

IMG_5563

ক্যানন ৬ডি + ৭০-২০০ এফ২.৮ ফোকাস ১৯০মিমি এফ/৫.৬ ১/৫০০ আইএসও ৮০০

ক্যানন ৬ডি + ৭০-২০০ এফ২.৮ ফোকাস ২০০মিমি এফ/৪ ১/১৬০ আইএসও ২৫০

ক্যানন ৬ডি + ৭০-২০০ এফ২.৮ ফোকাস ২০০মিমি এফ/৪ ১/১৬০ আইএসও ২৫০

ক্যানন ৬ডি + ৭০-২০০ এফ২.৮ ফোকাস ১৯০মিমি এফ/৮ ১/২৫০ আইএসও ২০০০

ক্যানন ৬ডি + ৭০-২০০ এফ২.৮ ফোকাস ১৯০মিমি এফ/৮ ১/২৫০ আইএসও ২০০০

আরো কিছু ছবি

প্রজাপতি ১

ক্যানন ৬ডি + ৭০-২০০ এফ২.৮ ফোকাস ১৯০মিমি এফ/৭.১ ১/৪০০ আইএসও ১৬০০

ক্যানন ৬ডি + ৭০-২০০ এফ২.৮ ফোকাস ১৯০মিমি এফ/৭.১ ১/৪০০ আইএসও ১৬০০

প্রজাপতি ২

ক্যানন ৬ডি + ৭০-২০০ এফ২.৮ ফোকাস ১৯০মিমি এফ/৫.৬ ১/৫০০ আইএসও ৫০০

ক্যানন ৬ডি + ৭০-২০০ এফ২.৮ ফোকাস ১৯০মিমি এফ/৫.৬ ১/৫০০ আইএসও ৫০০

প্রজাপতি ৩

ক্যানন ৬ডি + ৭০-২০০ এফ২.৮ ফোকাস ১৯০মিমি এফ/৫.৬ ১/৫০০ আইএসও ৫০০

ক্যানন ৬ডি + ৭০-২০০ এফ২.৮ ফোকাস ১৯০মিমি এফ/৫.৬ ১/৫০০ আইএসও ৫০০

প্রজাপতি ৪

ক্যানন ৬ডি + ৭০-২০০ এফ২.৮ ফোকাস ১৯০মিমি এফ/৫.৬ ১/২৫০ আইএসও ২০০

ক্যানন ৬ডি + ৭০-২০০ এফ২.৮ ফোকাস ১৯০মিমি এফ/৫.৬ ১/২৫০ আইএসও ২০০

প্রজাপতি ৫

ক্যানন ৬ডি + ৭০-২০০ এফ২.৮ ফোকাস ১৯০মিমি এফ/৫ ১/২৫০ আইএসও ১৬০

ক্যানন ৬ডি + ৭০-২০০ এফ২.৮ ফোকাস ১৯০মিমি এফ/৫ ১/২৫০ আইএসও ১৬০

প্রজাপতি ৬ (Rice Paper, Large Tree Nymph)

ক্যানন ৬ডি + ৭০-২০০ এফ২.৮ ফোকাস ১৯০মিমি এফ/৫.৬ ১/২৫০ আইএসও ৫০০

ক্যানন ৬ডি + ৭০-২০০ এফ২.৮ ফোকাস ১৯০মিমি এফ/৫.৬ ১/২৫০ আইএসও ৫০০

প্রজাপতি ৭

ক্যানন ৬ডি + ৭০-২০০ এফ২.৮ ফোকাস ২০০মিমি এফ/৪.৫ ১/২০০ আইএসও ১০০

ক্যানন ৬ডি + ৭০-২০০ এফ২.৮ ফোকাস ২০০মিমি এফ/৪.৫ ১/২০০ আইএসও ১০০

প্রজাপতি ৮

ক্যানন ৬ডি + ৭০-২০০ এফ২.৮ ফোকাস ১৮০মিমি এফ/৪.৫ ১/১৬০ আইএসও ৩২০০

ক্যানন ৬ডি + ৭০-২০০ এফ২.৮ ফোকাস ১৮০মিমি এফ/৪.৫ ১/১৬০ আইএসও ৩২০০

প্রজাপতি ৯

ক্যানন ৬ডি + ৭০-২০০ এফ২.৮ ফোকাস ২০০মিমি এফ/৫.৬ ১/১৬০ আইএসও ৬৪০

ক্যানন ৬ডি + ৭০-২০০ এফ২.৮ ফোকাস ২০০মিমি এফ/৫.৬ ১/১৬০ আইএসও ৬৪০

প্রজাপতি ১০ (Monarch Butterfly)

ক্যানন টি৩-আই + ১৮-৫৫ এফ৩.৫-৫.৬ ফোকাস ৫৫মিমি এফ/৭.১ ১/৪০০ আইএও ৪০০ (স্বত্ব: সুব্রত)

ক্যানন টি৩-আই + ১৮-৫৫ এফ৩.৫-৫.৬ ফোকাস ৫৫মিমি এফ/৭.১ ১/৪০০ আইএও ৪০০ (স্বত্ব: সুব্রত)

প্রজাপতি ১১

ক্যানন ৬ডি + ৭০-২০০ এফ২.৮ ফোকাস ২০০মিমি এফ/৫.৬ ১/১৬০ আইএসও ৬৪০

ক্যানন ৬ডি + ৭০-২০০ এফ২.৮ ফোকাস ২০০মিমি এফ/৫.৬ ১/১৬০ আইএসও ৬৪০

শেষ কথা (যা শিখলাম) যা ভবিষ্যতে কাজে লাগতে পারে:

  • ২০০মিমি লেন্স দিয়ে ছবি তুললে এপারচার ৫.৬ দিয়ে হবে যদি প্রজাপতি বেশ দূরে (২-৩ মিটার বা ততোধিক) থাকে। প্রজাপতি যদি মিনিমাল ফোকাস দুরত্ব থাকে তাহলে ৭.১ বা তার উপরে ছবি তুলে পরীক্ষা করে দেখতে হবে ফোকাসে আসছে কিনা
  • ১০০মিমি লেন্স দিয়ে তুললে ৫.৬ এ হবে যদি প্রজাপতি আধা মিটার বা তার বেশী দূরে থাকে। এই লেন্স দিয়ে ম্যাক্রো মোডে ছবি তোলা যাবে না।
  • অনেকেই ট্রাইপড দিয়ে প্রজাপতির ছবি তোলার পরামর্শ দিয়ে থাকেন। এটা ব্যক্তিগত পছন্দের বিষয়। আমি ট্রাইপড ছাড়াই স্বচ্ছন্দ বোধ করেছি। ট্রাইপড থাকলে ছবি হয়তো ভালো তোলা যাবে তবে সময় অনেক বেশী দিতে হবে। ট্রাইপড নিয়ে সহজে এদিক সেদিক নড়াচড়া করা সহজ নয়।
  • ম্যাক্রো লেন্স দিয়ে মিনিমাম ফোকাস দূরত্বের ছবি তোলা বেশ কঠিন। ১০০মিমি ম্যাক্রো লেন্স দিয়ে ঘরের মধ্যে তত কঠিন মনে হয়নি অথছ বাইরে অনেক কঠিন মনে হল। অটোফোকাস ঠিক মত কাজ করলেও নিজে স্হির না থাকতে পারলে ছবিতে ফোকাস রাখা বেশ শ্রমসাধ্য। বাইরে যেয়ে কোন এক বিচিত্র কারণে স্হির থাকা কঠিন মনে হল অথচ ঘরে অনেক ধীর শাটারস্পিডেও ম্যাক্রো লেন্স দিয়ে ছবি তুলতে ততটা কঠিন মনে হয়নি।
  • ছবি তোলাই মূল উদ্দেশ্য হলে বাচ্চা-কাচ্চা সাথে না নিয়ে যাওয়াই ভালো হবে। যথেষ্ট সময় হাতে নিয়ে যেতে হবে।
  • প্রচুর ছবি তুলতে হবে। ক্যামেরাকে মিডিয়াম বারস্ট মোডে সেট করতে হবে। ছবি তোলার সময় একসাথে ২/৩টি ছবি তোলা ভালো।
  • প্রচুর ছবি তুলতে গেলে অবশ্যই হাই ক্যাপাসিটি মেমরি কার্ড নিতে হবে।
  • একটা ক্যামেরা নিয়ে গেলে হয়তো ভালো হবে। কেননা অল্প জায়গায় দুটো ক্যামেরা হ্যান্ডল করা একটু বিরক্তিকর।
  • ক্যামেরা, লেন্স সবকিছুর সেটিংস ছবি তোলার শুরুতেই চেক করে নিতে হবে। আইএস-মোড থাকলে সেটা মোড-১ এ সেট করে নিতে হবে। ভুলে মোড-২ এ সেট করা থাকলে ছবিও কিন্তু ২ নম্বর আসবে। (মোড-২ হলো প্যানিং মোড)

আপনি কোন টিপ দিতে চাইলে মন্তব্যে জানান। ধন্যবাদ পড়ার জন্য।

প্রথম ছবির প্রজাপতিটির বেশ কয়েকটি নাম আছে: রাইস পেপার (Rice paper), Large tree nymph.

2 Comments

Add yours
  1. 1
    nurulamin

    বাহ – খুব ভাল লাগলো – সুন্দর সব প্রজাপতির ছবি – টিপস গুলা নতুনদের কাজে লাগবে

  2. 2
    Enayet

    অনেক ধন্যবাদ রাসেল। কারো কাজে লাগলেই ভাল 🙂
    তোমার ফটোগ্রাফি কেমন চলছে? নাকি ব্যস্ততার কারণে বন্ধ হয়ে আছে?

+ Leave a Comment

Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.